Author: Asmania

সম্পাদকীয় – মানস বন্দ্যোপাধ্যায়

রাত  শেষ হয়ে আসে। শহরের গায়ে  আরামের চাদর বিছিয়ে ঘুম। শব্দহীন শহরের ফুটপাথে মশারি খাটানো। হিমের বিষাক্ত কামড় এড়াতে মরিয়া মানুষের আগুন পোহানোর স্মৃতি বুকে ইতি উতি ধিকি ধিকি আগুন জ্বলছে। কুয়াশার আস্তরণ ঠেলে শেষ রাতের শুকতারা তার চিরন্তন উপস্থিতি জানান দিচ্ছে। এভাবেই একটার পর একটা কষ্টের রাত  পেরিয়ে শহর জেগে ওঠে অপেক্ষার আগুন জ্বেলে। কোনও  এক সকালে হালকা স্বরে কোকিলের কুহু গেয়ে ওঠে। মনকে আনমনা করে উত্তুরে হিমেল হাওয়া কে বিপ্লবী চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয়  দখিনা হাওয়া। এতো যুগ  যুগান্তের গল্পো। আশৈশব জীবনের গুটি গুটি পায়ে এগিয়ে চলার প্রতিটি মুহূর্তই অপেক্ষা। ‘সে আসিবে আমার মনও বলে’ . সত্যিই তো আসে। অপেক্ষার আলোকবর্ষ পেরিয়ে একদিন সত্যিই স্বপ্নের আলিঙ্গন করে।  ক্যালেন্ডারের পাতা মিলিয়ে তো আর জীবন চলে না। মে জুন মাসের আগুনে পুড়তে পুড়তে মন তো অপেক্ষাই করে। একটা বিপ্লবী বিকেল।আকাশ কালো করে আসা স্বপ্ন। শরীরের প্রতিটি রোমকূপকে বৃষ্টির জলে ভিজিয়ে দিতে ইচ্ছে করে। শহরের জলছবি জুড়ে স্বস্তির অভ্যুথান। আকাশের এ প্রান্ত ও প্রান্ত জ্বলে ওঠে বিদ্যুৎ চমকে। মনের মাঝে যুদ্ধ জয়ের আনন্দ। জাপ্টে ধরতে ইচ্ছে করে চির স্রোতস্বীনি বর্ষাকে। বসন্তের আগমনে সেই আচমকা চমক নেই , আছে ধীরে ধীরে মনের সবটুকু দখল করে নেবার আগ্রাসন। যে সর্বনাশের আশায় মনের সবটুকু নিয়ে বসে থাকা জানলা খুললে সেই সর্বনাশের বার্তা আনে ফাল্গুন। সাত বছর আগের এমনই  এক বসন্ত বাতাসে সর্বনাশের নেশায় মেতে উঠেছিলাম। যুক্তি তর্কের আগল ঠেলে একটি পত্রিকা জন্ম নিয়েছিল। ওয়েবের আকাশে তখনও  এত তারকা সমাবেশ হয় নি। আমার জীবনের তখন আগুনখেকো সময়। কিছু অসম্ভব প্রতিভাবান বন্ধু সাথ  দিয়েছিল।...

Read More

বসন্তের একদিনে – সায়ন্তন সেনগুপ্ত

অনেকক্ষণ ধরে একটা মিষ্টি সুর ঘরের চার দেওয়ালে ধাক্কা খেয়ে একসময় থেমে গেল।মোবাইল বলছে মিসড কল অমৃতা।কাল অনেক রাত অবধি অনুভূতি গুলোকে ডাইরীতে নামানোর চেষ্টা হয়েছে, তাই হয়ত একটা আলস্য ঘিরে রেখেছে শ্রেয়াকে। কিন্তু উঠতে তো হবেই নাহলে মা এখনি ডাকাডাকি শুরু করবে। সকালের এই সময়টা বাড়ীতে এমনিতেই ব্যস্ততা থাকে, শ্রেয়া কলেজ বের হয়, বাবা অফিসে।মা তাই এই সময়টা রান্নাঘরে ব্যস্ত থাকেন।তবু সকালের ব্রেকফাস্টটা একসাথে করা এ বাড়ীর রেওয়াজ।বাবা ডাইনিং টেবিলে বসে কাগজটায় চোখ বুলিয়ে নেন। আজ পেপারের সাথে একটা সাপ্লিমেন্টারি দিয়েছে, বোধহয় আজকের দিনটাকে নিয়েই হবে। টেবিলের ওপরে পড়ে থাকলেও এবাড়ির কালচার অনুযায়ী বাবা মার সামনে শ্রেয়া তা পড়বে না। অনেক কিছুই ও করেনা যা ওর সমবয়সী বন্ধুরা করে থাকে।এ নিয়ে কলেজে কম প্যাক খেতে হয়নি। শত তাড়ার মধ্যেও স্নানঘরের মিনিট দশেক ওর নিজের জন্য তুলে রাখে।এইসময় ও দিনের শিডিউলটা নিজের মতন করে গুছিয়ে নেয়।যেমন আজ প্রথমে কলেজস্ট্রিটে একটা বই বদলাবে, তারপর কলেজ আর সব শেষে বি.কে. স্যারের কোচিং করে বাড়ী ফিরতে ফিরতে রাত আটটা। শাওয়ারের জলটা শরীর ভেজাতেই আলস্যটা কেমন যেন আজ মন খারাপে বদলেগেল।অথবা ওটা শুরু থেকে মনখারাপই ছিল ওই হয়ত বুঝতে পারিনি।এমনিতে মনখারাপকে ও খুব ভই পায়, তবু যে কোথা থেকে ঈশান কোনে মেঘ জমে আর তারপর পুরো আকাশটার দখল নিয়ে নেয়। বাড়ী থেকে মিনিট দশেকের অটোয় ফারিটফোর স্ট্যান্ড, আজ কপাল ভালো তাই বাসে উঠে জালনার পাশে একটা সিট্ পেয়ে গেল।ইতিমধ্যে অমৃতা আরেকবার ফোন করেছিল , বলল কলেজের নাম করে সারা দিন ঋজুদার সাথে কাটাবে।এক...

Read More

ফিরিয়ে দে চোখ – অনির্বাণ ঘোষ

তোর চোখে চোখ পেতে দিই নিঃসঙ্কোচে, চোখ পেতে দিই, দু চার লাইন পদ্য চেয়ে। ঋণমুক্তি, পরিশোধের সুযোগ দে তুই, অন্য কোথাও আল্তা জলে পা ডুবিয়ে। রঙীন আলো জলকে নামুক স্ফটিক গ্লাসে, বৃষ্টি রাখুক কার্নিশে পা একলা ছাতে.. বেনিয়মের নিয়ম গড়ে লুটছি মজা, তুই মজা নে ঘর সাজিয়ে ফুলদানিতে।  অসহ্য তোর আঁকড়ে এবং আটকে থাকা, আঙুল ফাঁকে অবাঞ্ছিত আগুন মেখে ছড়িয়ে ফ্যাল উপহারের মোড়কগুলো, ফিরিয়ে দে চোখ, চোখ ফিরিয়ে অন্য...

Read More

প্যারোটিড – সুপ্রিয় সুর

টিকটিকিদের সাম্রাজ্যে কেউ আগুন পোয়ায় না, সংবিধান মাথায় রেখো। হোঁচট খেলে হাত বাড়াবে না কেউ ; নিজস্ব অভিজ্ঞতা। যারা এসেছিলো, চলে গেছে, ফেলে গেছে কুনো ব্যাঙের প্যারোটিভ। তুমি কি অসহ্য গরম সহ্য করতে পারো? তাহলে লোহা হয়ে যাও… রড, শিক, আলপিন, পেরেক সব পেনিট্রেটিভ বস্তু সমূহ। ব্যথা যার ইচ্ছে লাগুক, সব শুয়োরের পশ্চাদ্দেশ। দৌড়াও, দৌড়াও, হাঁপিয়ে পড়লে গ্লুকোন – ডি...

Read More

কয়েকটা টুকরো কবিতা – সুপ্রিয় সুর

শান্ত জঙ্গলের শান্তি কই? ঘুড়ি লাটাই থাকলেই হয় না… বাতাসে গাছের মাথা দোলানো বুঝতে হয়… ক্ষনিকের স্বাধীনতা তুমি… আমৃত্যু অনন্তের আতিশয্যে ভেসে যেতে চাই না দুরন্ত সমীরণ তুমি মৃদু মন্দ মলয়ের ঘ্রাণ নাকে চাই না… ফেরো শুধু সন্ধ্যা মনের বালুর তীর তিতির ঘেরা মাঠের শেষ খুব গম্ভীর কবিতাটা মাথায় চাপুক ফের আবার সময় থাকুক কবিতাকে...

Read More

নতমস্তকে

Archives

ষ্টুডিও সহযোগী

Free WordPress Themes, Free Android Games