Author: Asmania

বৈশাখী বন্ধু সংঘের পুজোর উদ্বোধন

বৈশাখী বন্ধু সংঘের পুজোর উদ্বোধন করলেন সল্টলেকের বিধায়ক সুজিত বসু , মিরাক্কেল খ্যাত সুরঞ্জিত কর্মকার। উপস্থিত ছিলেন ক্লাব সম্পাদক রঞ্জন ঘটক। এ বছরের শ্যামা পুজো ২৯ বছরে পদার্পন করলো। রঞ্জন বাবুর কথায় অঞ্চলের মানুষের সহায়তায় তাদের এই...

Read More

শাড়ি যখন ATTITUDE – সঙ্ঘমিত্রা গাঙ্গুলী ঘোষ (9830243356)

সত্যি কথা বলতে গেলে আমার শাড়ি প্রেমের শুরু বিয়ের পর থেকে. বিয়েতে এত শাড়ি প্রাপ্তি ঘটল যে শাড়ির প্রতি একটা আলাদা ভাল লাগা তৈরি হয়ে গেল. আবিস্কার করলাম শাড়ির একটা নিজস্ব অ্যাটিটিউড আছে. যা একেকজনের ক্ষেত্রে একেকভাবে প্রকাশ পায়. দেখুন না ঐশ্বর্য্যা রাই যখন শাড়ি পড়েন, তখন তাঁর মোহময়ী অ্যাটিউড চুম্বকের মত টেনে রাখে. আবার মহারানি গায়ত্রি দেবীর শাড়ি পড়া ছবি দেখুন. স্টাইল আর অ্যাটিটিউড মিলে মিশে একটা রাজসিক সম্ভ্রম তৈরি করে. তাই শাড়ি শুধু একটা পোশাক নয়. শাড়ি হল একটা অ্যাটিটিউড. আর এখান থেকেই জন্ম Sareetude-এর. শাড়ি উইথ অ্যাটিটিউড. (saree with attitude) শাড়িটিউডে আমরা শাড়ির বাছাইয়ের ক্ষেত্রে খুব...

Read More

অকপট অমৃতা

সামনে পুজো আসছে ,তো অমৃতা চট্টোপাধ্যায় হওয়ার আগের পুজো এবং পরের পুজোর মধ্যে কি কোনো তফাৎ আছে? অমৃতা  : ছোট বেলা থেকেই ভিড়ভাট্টা পছন্দ হয় না, খুব ভিড়ে চলাফেরা করাটা একটু ডিফিকাল্ট, সে জন্য পুজোর সময় কাছের কোনো প্যান্ডেলে গিয়ে আড্ডা মারাটাই আমার কাছে বেশি পছন্দের। অন স্ক্রিন মহালয়ায় অমৃতা চট্টোপাধ্যায়কে দুর্গা হিসেবে কি কোনোদিন  দেখতে পাবে দর্শক? অমৃতা : যদি কোনোদিনও সেরম সুযোগ পাই,তাহলে অব্যশই করবো।  আপনার মায়ের বহু বছরের স্বপ্ন বুটিক “তুস্তি “,তৈরি করতে আপনার কতটা কন্ট্রিবিউসন আছে? অমৃতা : কোনো কিছু শুরু করার পেছনে,অনেকদিন ধরে একটা প্ল্যান চলতে থাকে,সেই রকমই হঠাৎ করেই তুস্তি শুরু করা,সেই পথ চলতে চলতে এবছর তুস্তি...

Read More

পার্থসারথী – মানস বন্দ্যোপাধ্যায়

মানুষের মনে চিরকালই বঞ্চিত মানুষের জন্য একটা সফট কর্নার থাকে। আর বীরপূজার চিরায়ত অভ্যাসে আমরা চিরকালই সেই মানুষটার গলায় বিজয়মাল্য তুলে দি যে বঞ্চনার পাহাড় ঠেলে জীবনযুদ্ধের ডার্ক হর্স হয়ে আলটিমেটলি শ্রেষ্ঠত্বের শিরোপা  তুলে নেয়। মহাভারতের মহাকাব্য অনেকটা যেন সেই সুরেই বাধা। মহাভারতের অসংখ্য সংস্করণ এবং তার একাধিক ব্যাখ্যা থেকে যে যুক্তিনিষ্ঠ ঐতিহাসিক কাহিনী চিত্র উঠে আসে তা  কিন্তু কাউন্টার আটাকের গল্প।  মহাভারতের ঘটনা ধারা যেভাবে এগিয়েছে তাতে পাণ্ডবদের জন্য পাঠকের মনে একটা নরম জায়গা আসতে বাধ্য । পাঁচ ভাই। ছোটবেলাতেই বাবাকে হারিয়েছে। প্রথম থেকেই একাধিক চক্রান্তের স্বীকার। মহাযুদ্ধের অনেক আগেই জতুগৃহে পুড়ে মারা যাবার কথা যাদের। যতবার মাথা তুলতে গেছেন হস্তিনাপুরের অপরাজেয় রাজশক্তি ছলে বলে...

Read More

বিজয়ী – অর্নব মন্ডল

ঘটনাটা যখন ঘটে আমি তখন ফার্স্ট ইয়ারে পড়ি। ইংলিশ এ অনার্স পড়ছি বিদ্যাসাগর কলেজে। দিনকে দিন তখন আমাদের কয়েকজনের মাথার যন্ত্রনার বিষয় হয়ে উঠছিল এই ইংলিশ অনার্স টা। কিন্তু কি আর করা যাবে তখন আর চেঞ্জ করার উপায় ছিল না। রেজিস্ট্রেশন হয়ে গেছে। সামনেই মিড টার্ম পরীক্ষা। আর তাছাড়া বিষয় চেঞ্জ করার কথা বাড়িতে বললেই কৈফিয়ত দিতে হবে ‘কেন ? কি অসুবিধে হচ্ছে, সবাই পারলে তুই পারবি না কেন?’ ইত্যাদি ইত্যাদি। এই ভয়েই আমরা কয়েকজন ‘যা হবে দেখা যাবে’ রকমের মনোভাব নিয়ে টিকে ছিলাম। একে তো এই চাপ তার ওপর আমাদের কলেজে ছিলেন রজতাভ দত্ত নামে একজন দজ্জাল প্রফেসর। ছাত্রের মনোবলকে মাটিতে মিশিয়ে দেওয়ার কাজে ওনার যেন ডক্তরেট করা ছিল। আমরা আড়ালে ওনাকে আর ডি এক্স বলে ডাকতাম। আমাদের ডিপার্টমেন্টে জয় বলে একটা ছেলে পড়ত। ওই একমাত্র ছেলে ছিল যে ওনাকে খুব একটা পাত্তা দিতনা। বলা বাহুল্য আর ডি এক্স নামটা জয়েরই দেওয়া। কিন্তু সৌভাগ্যবশতই হোক বা দুর্ভাগ্যবশত জয়ের সাথেই সবথেকে বেশি শত্রুতা ছিল ইংরেজির। ও যে ইংরেজি তে কাঁচা ছিল তাও না। ভাল Article লিখত। ইংরেজি গল্পের বই পড়ত অনেক। কিন্তু পড়াশুনো ও করত না। আমার সাথে একই মেসে থাকত তাই খুব কাছ থেকে চিনেছিলাম আমি ওকে। আজ এখানে কাল সেখানে খালি টো টো করে ঘুরে বেড়াত। কাজেই আর ডি এক্স এর (নাকি রজতাভ বাবু বলব?) বকুনিও রোজ ওর জন্যেই বরাদ্দ থাকত। তাতে অবশ্য খুব একটা পরিবর্তন হত না। ‘চোরা না শোনে ধর্মের কাহিনি’ প্রবাদের সার্থক উদাহরণ আমরা...

Read More

ষ্টুডিও সহযোগী

ব্লগ সহযোগী

ইভেন্ট সহযোগী

Recent Posts

Free WordPress Themes, Free Android Games